অবশেষে নওমুসলিম ‘ফারুকীকে ‘ হত্যা করা হলো ।

 

 

 

 

 

নওমুসলিম ফারুকীকে হত্যা করা হলো । তিনি বান্দরবন জেলার তুলাছড়ি গ্রামের মসজিদের ইমাম ছিলেন । মসজিদে নামায পড়িয়ে বাড়ি যাবার সময় একটি সন্ত্রাসী গ্রুপ তাকে নির্মম ভাবে হত্যা করে ।

 

ওমর ফারুক ছিলেন খ্রিষ্টধর্মর অনুসারি । কিন্তু তিনি তার নিজ ধর্ম ত্যাগ করে মুসলিম ধর্ম গ্রহন করেছিলেন , সেটাই ছিল তার অপরাধ । বান্দরবন জেলার তুলাছড়ি গ্রামের কিছু সন্ত্রাসী তাকে অনেক দিন যাবত হুমকি দিয়ে যাচ্ছিল  । অবশেষে সন্ত্রাসীরা তার প্রাণটাই নিয়ে নিলো ।

 

নওমুসলিম ফাড়ূকী তার নিজ গ্রামে লোকের বাড়ি বাড়ি গিয়ে মুসলিম ধর্মের দাওয়াত দিতেন । স্থানীয় বাসিন্দাদের মধ্যে অনেকে তার এই কাজকে ভালো ভাবে দেখে নি । তাকে অনেক বার সাবধান ও করা হয়েছিল  । কিন্তু অবশেষে ২২ জুলাই মসজিদ থেকে নামায পড়িয়ে বের হবার পর তাকে মেরে ফেলা হল । তাকে হত্যার প্রতিবাদে বিভিন্ন স্থানে মানববন্ধন করা হয়। সবাই তার সুষ্টূ বিচার দাবি করেন এবং তাকে যারা হত্যা করেছেন তাদের কঠিন শাস্থি দাবি করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *